ঢাকা সোমবার, ২৭শে জুন ২০২২, ১৩ই আষাঢ় ১৪২৯


একটি স্পিডব্রেকারের দাবিতে রাস্তায় শিক্ষার্থীরা


প্রকাশিত:
৩০ মে ২০২২ ১৬:০০

আপডেট:
২৭ জুন ২০২২ ০৪:৪০

একটি স্পিডব্রেকারের দাবিতে রাস্তায় শিক্ষার্থীরা
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: নির্বিঘ্নে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জ্ঞান অর্জনের জন্য ও নিরাপদ সড়কের জন্য একটি স্পিডব্রেকারের দাবিতে মহাদেবপুর এনায়েতিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ও সচেতন স্থানীয়রা মানববন্ধন করেছে রোববার বৃষ্টি উপেক্ষা করে।
 
সড়কের দু'পাশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দু'দিকের ভবনেই ক্লাশ করতে হয় শিক্ষার্থীদের। সড়ক পার হতে গেলেই মৃত্যু! কি এক ভয়ানক স্থান। শিক্ষার্থী-শিক্ষক-অভিভাবক স্থানীয়রা বারবার মানববন্ধন ও স্মারকলিপি দিয়েও একটি গতিরোধক বা স্পিড ব্রেকার পাননি। দুঃখজনক হলেও ঘটনা এতটাই সত্য যে, ২০১৩ সালে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক যাওয়ার সময় তার সামনেই ওই স্থানে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। জেলা প্রশাসক নিজ উদ্যোগে আহত শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে পাঠান ও উক্ত স্থানে স্পিড ব্রেকার দেওয়ার আশ্বাস দেন। যা এখনো বাস্তবায়ন হয়নি।
 
দুর্ঘটনা প্রবণ এলাকাটি হচ্ছে লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর রোডস্থ দালাল বাজারের (জামতলি) মহাদেবপুর এনায়েতিয়া দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গন। ছোট্ট একটি স্থানে  মহাদেবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নামের আরেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। দুই প্রতিষ্ঠান মিলিয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা সাড়ে আটশ'র বেশী।
 
মাইলের মাথা থেকে জগনভূঁইয়া দীঘির পাড় পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়ক সরু হওয়ায় যানবাহন দ্রুতগতিতে ছোটে। শিক্ষার্থীরা সড়কের ওপাশের ভবনে যেতেই ঘটে বিপদ। এ পর্যন্ত বিশটির অধিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। বেশিরভাগ দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থীরা প্রাণ হারিয়েছেন ঘটনাস্থলেই। দাখিল পরীক্ষার্থী ইয়াসিন আরাফাত, তৃতীয় শ্রেণীর উম্মে আয়েশা নাফিসা ও ফারজানা আক্তার, বহিরাগত এক নারী ও একটি মেয়েসহ সাতজনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় পঙ্গু হয়ে গেছে দাখিল পরীক্ষার্থী  প্রাবিয়ান, বহিরাগত এক নারী, ষষ্ঠ শ্রেণির মোঃ সিয়াম হোসেন, আজিজুর রহমান মাহিসহ আরো অনেকে।
 
স্পিড ব্রেকার এর দাবিতে উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষার্থীদের মধ্যে শরীফ হোসেন, রায়হান হোসেন অনিক, অভিভাবক ও আহত শিশুর পিতা আমির হোসেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য ফিরোজ আলম হিরন, যুবলীগ নেতা মুরাদ হোসেন, শিক্ষক আনোয়ার হোসেন ও প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত সুপারিনটেনডেন্ট মাওলানা মিজানুর রহমান প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আক্তার হোসেন, আলমগীর হোসেন, মাওলানা নাসির আহম্মেদ, জাহাঙ্গীর হোসেন, রিয়াজ হোসেনসহ স্থানীয় আরও অনেকে।
 
মৃত্যু ও পঙ্গুত্বের মিছিল দীর্ঘ না করে সর্বস্তরের মানুষের দাবী লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর কর্মকর্তার  কাছে দ্রুত মাদ্রাসার সামনে একটি স্প্রিড ব্রেকার স্থাপন করে শিক্ষার্থীদের নির্বিঘ্নে জ্ঞান অর্জনে সহযোগিতা করুন।


আপনার মূল্যবান মতামত দিন: