ঢাকা রবিবার, ৯ই আগস্ট ২০২০, ২৬শে শ্রাবণ ১৪২৭


মেডিকেল কলেজের করোনা ওয়ার্ডে ঢুকে রোগীর গয়না লুট!


প্রকাশিত:
৩১ জুলাই ২০২০ ০৯:৫০

আপডেট:
৯ আগস্ট ২০২০ ২১:০৮

সংগৃহীত

নিউজ ডেস্কঃকলকাতায় সরকারি হাসপাতালের কোভিড-১৯ ওয়ার্ডে ঢুকে রোগীর সোনার গয়না লুটের অভিযোগ উঠেছে। কলকাতা শহরের প্রথম সারির কোভিড-১৯ হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজের সুপার স্পেশ্যালিটি ব্লকে বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটেছে। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বসিরহাটের বাসিন্দা এক মহিলা মেডিকেল কলেজের এসএসবি ব্লকের আট তলায় ভর্তি ছিলেন। ওই ওয়ার্ডটি মহিলা কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য নির্দিষ্ট। জানা যায়, ৭৭২ নম্বর বেডের রোগীর কাছে পিপিই কিট পরে দুপুরে এক যুবক হাজির হয়। তিনি নিজেকে হাসপাতালের কর্মী বলে পরিচয় দেয়।

রোগীর অভিযোগ, ওই ব্যক্তি তাকে বলেন, হাসপাতালের নিয়ম অনুযায়ী সোনার গয়নাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র কাছে রাখা যাবে না। এর পরেই তিনি বলেন, তাকে দিয়ে দিলে নীচে রোগীর আত্মীয়দের কাছে ওই সব জিনিসপত্র পৌঁছে দেবেন। তিনি ওই ব্যক্তির কথা শুনে তাকে অবিশ্বাস করতে পারেননি বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি করেছেন রোগী। তিনি সরল বিশ্বাসে হাসপাতাল কর্মী ভেবেই নিজের গলার সোনার হার ও আংটি খুলে দেন পিপিই পরা ওই ব্যক্তিকে।

খবরে বলা হয়, ওয়ার্ড থেকে বের হবার সময় ওই ব্যক্তি এক নার্সের মুখোমুখি হয়। নার্সের সন্দেহ হলে ওই ব্যক্তিকে দাঁড় করিয়ে প্রশ্ন করেন, কেনো তিনি মহিলাদের কোভিড ওয়ার্ডে ঢুকেছেন?

জবাবে তিনি নার্সকে জানান, রোগীর পরিবারের তরফেই তাকে গয়না নিতে উপরে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু বিষয়টি ওই নার্সের বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি। পালিয়ে যাওয়ার আগে তিনি ওই ব্যক্তিকে ধরার চেষ্টা করেন। পিছনে তাড়াও করেন। কিন্তু লাভ হয়নি। সে পালিয়ে যায়।

হাসপাতালের সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস বলেছেন, ‘আমরা এখনো এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি।

খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: