ঢাকা বুধবার, ২২শে সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ই আশ্বিন ১৪২৮


ভারতে ‘অজানা জ্বরে’ আক্রান্ত কয়েকশ শিশু, এক সপ্তাহে মৃত্যু ৫০


প্রকাশিত:
১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৩:৩৭

আপডেট:
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০১:৫০

হাসপাতালে ভর্তি শিশুদের একাংশ।ছবিঃ এএফপি

নিউজ ডেস্কঃ

এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে ভারতের উত্তরপ্রদেশের কয়েকটি জেলায় কয়েকশ শিশুর উচ্চমাত্রার জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে অনেকেই জয়েন্টে ব্যথা, মাথাব্যথা, পানিশূন্যতা ও বমি বমি ভাবের মতো উপসর্গের কথা জানিয়েছে। কয়েকজনের পা ও বাহুতে ফুসকুড়ি ছড়িয়ে পড়ার খবরও পাওয়া গেছে।

আজ বুধবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তরপ্রদেশে জ্বরে আক্রান্ত শিশুরা কেউ কোভিড-১৯ পজিটিভ নয়, তাদের কারও ডেঙ্গুও শনাক্ত হয়নি। এই 'অজানা জ্বরে' গত সপ্তাহে কমপক্ষে ৫০ জন, যার অধিকাংশই শিশু মারা গেছেন। রাজ্যের পূর্বাঞ্চলের ছয়টি জেলায় কয়েকশ মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যেই ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য উত্তরপ্রদেশের গ্রামাঞ্চলে 'রহস্যজনক জ্বর' নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

আক্রান্ত কয়েকটি জেলা আগ্রা, মথুরা, মাইনপুরী, ইটাহ, কাসগঞ্জ ও ফিরোজাবাদের চিকিৎসকদের মতে, এক ধরনের ডেঙ্গুই এই মৃত্যুর প্রধান কারণ হতে পারে। তারা বলছেন, অনেক রোগীর শরীরে প্লাটিলেট কমতে দেখা গেছে, যা ডেঙ্গুর মারাত্মক রূপকে চিহ্নিত করছে।

ফিরোজাবাদ জেলার ঊর্ধ্বতন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নীতা কুলশ্রেষ্ঠ জানান, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী বিশেষ করে শিশুরা খুব দ্রুত মারা যাচ্ছে। ফিরোজাবাদে গত সপ্তাহে ৩২ জন শিশুসহ মোট ৪০ জন মারা গেছেন।

প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী প্রায় ১০ কোটি মানুষ গুরুতরভাবে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়। এসব ক্ষেত্রে প্লাটিলেট কমে যাওয়া, অঙ্গ বিকল হওয়ার মতো জটিলতা রেকর্ড করা হয়ে থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, 'কোভিড-১৯ ও ডেঙ্গু মহামারি একসঙ্গে শুরু হলে এই দুটির সম্মিলিত প্রভাব সম্ভাব্য ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর জন্য ধ্বংসাত্মক পরিণতি ডেকে আনতে পারে।'



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: