ঢাকা সোমবার, ২৫শে জানুয়ারী ২০২১, ১৩ই মাঘ ১৪২৭


এই সময় গুড় কেন খাবেন?


প্রকাশিত:
২২ নভেম্বর ২০২০ ১৪:৪২

আপডেট:
২৫ জানুয়ারী ২০২১ ২৩:২৫

নিউজ ডেস্কঃ  ঋতু পরিবর্তন অনুযায়ী কিছু খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি। গরমকালে যেমন পানীয় জাতীয় খাবার শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে তেমনি সব ঋতুতে পাওয়া গেলেও শীতকালে গুড় খাওয়া শরীরের জন্য বিশেষ উপকারী।

সাধারণত আখ বা খেজুরের রস থেকে গুড় তৈরি করা হয়। তবে অনেক দেশে পামের রস থেকেও গুড় তৈরি করা হয়। রস সংগ্রহ করার পরে তা বড় পাত্রে সংরক্ষণ করা হয় এবং তা কিছুক্ষণ স্থির ভাবে রেখে দিয়ে জ্বাল দেওয়া হয়। এই রস আগুনের তাপে ফুটে ওঠে এবং গুড়ে পরিণত হয়। যেহেতু এটা প্রাকৃতিক মিষ্টি তাই এর নানা উপকারিতা রয়েছে।

চিনিতে রয়েছে সুক্রোজ নামে শর্করা। আর গুড়ে সুক্রোজের সঙ্গে থাকে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, আয়রন। সেই সঙ্গে সামান্য প্রোটিনও থাকে গুড়ে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পুষ্টিগুণের দিক দিয়ে চিনির চেয়ে গুড় বেশি উপকারী। এতে শরীরের জন্য উপকারী প্রচুর পরিমাণে খনিজ, আয়রন, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, সেলেনিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও জিঙ্ক পাওয়া যায়। আয়ুর্বেদের মতে, গুড় নানারকম পেটের অসুখ সারাতেও ভূমিকা রাখে।

এছাড়া শীতের সময় কফ, গলাব্যথা, গলাফোলা বা খুসখুসে কাশি হলে গুড় সেগুলো নিরাময় করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা যেমন-কফ, বুকে কফ জমাট বাঁধা, রক্ত প্রবাহে সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। এই সময় গুড় খেলে আরও অনেক উপকার পাওয়া যায়। গুড় রক্ত পরিষ্কার করে, হিমোগ্লবিনের মাত্রা বাড়ায়, আর শরীরের অবাঞ্ছিত উপাদান দূর করে।

এমনিতে শীতের শুষ্ক ঠাণ্ডা বাতাসের কারণে জীবাণু ছড়িয়ে পড়ে, শরীর রোগাক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। এ কারণে এ সময় নিয়মিত গুড় খেলে পাকস্থলী, অন্ত্র, ফুসফুস এবং খাদ্যনালী সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: