ঢাকা বুধবার, ৩রা মার্চ ২০২১, ২০শে ফাল্গুন ১৪২৭


একদিন আগেই দ. আফ্রিকাকে হারিয়েছে পাকিস্তান


প্রকাশিত:
২৯ জানুয়ারী ২০২১ ১৮:৪৩

আপডেট:
২৯ জানুয়ারী ২০২১ ২১:১৩

নিউজ ডেস্কঃ দীর্ঘ ১৪ বছর পর পাকিস্তান সফরে এসে করাচি টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারতে হয়েছে চার দিনে। বলা যায় স্বাগতিক বোলারদের তোপে এক ইনিংসেও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি সফরকারীরা।

করাচিতে সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল প্রোটিয়ারা। ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিনেই মাত্র ২২০ রানে অল-আউট হয়ে যায়। ইনিংসে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করেন ওপেনার ডিন এলগার। ৩ উইকেট নেন ইয়াসির শাহ, ২টি করে নেন শাহিন আফ্রিদি ও নুমান আলী।

এদিন ব্যাট করতে নেমে সমান বিপাকে পড়ে পাকিস্তানও। ১৮ ওভারে ৩৩ রানেই হারায় ৪ উইকেট। শেষ পর্যন্ত প্রোটিয়া বোলারদের তোপ সামলে ফাওয়াদ আলমের ১০৯, ফাহিম আশরাফের ৬৪ আর আজহার আলীর ৫১ রানে ভর করে ৩৭৮ রান তোলে।

বিপরীতে ৩টি করে উইকেট নেন কাগিসো রাবাদা, কেষব মহারাজ এবং ২টি করে উইকেট নেন এনরিক নরকিয়া ও লুঙ্গি এনগিদি।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের পরিবর্তন করতে পারেননি প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। ৩৪ বচরে অভিষিক্ত পাকিস্তানি অফ স্পিনার নুমান আলীর তাণ্ডবে খেই হারায় প্রোটিয়ারা। তবে এইডেন মার্করামের ৭৪, ভ্যানডার ডুসেনের ৬৪ আর টেম্বা ভাবুমার ৪০ রানে ভর করে ২৪৫ রান তুলে ৯০ রানের লিড দেয় পাকিস্তানকে।

৩৪ বয়সী নুমান আলী অভিষেকে নেন ৫ উইকেট। গত ৭২ বছরে এমন কিছু দেখাতে পারেননি টেস্ট খেলুড়ে দেশের কোনো ক্রিকেটার। এছাড়া ইয়াসির আলী নেন ৪ উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জয় পেতে বেগ পেতে হয়নি পাকিস্তানকে। দুই ওপেনার ইমরান বাট (১২), আবিদ আলী (১০) ফেরার পর বাবর আজম ও আজহার আলীর জুটি দলকে নিয়ে যায় জয়ের দ্বারপ্রান্তে। যদিও বাবর আলী সাজঘরে ফেরেন ৩০ রান করে। বাকি কাজটা করেন আজহার আলী। তার অপরাজিত ৩১ রানে ভর করে চার দিনেই ৭ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: